১৪৬ বছরে পা রাখলো ঐতিহ্যবাহী দেশসেরা রাজশাহী কলেজ

0
55

১৮৭৩ সালের পহেলা এপ্রিলে মাত্র ৬ জন ছাত্র নিয়ে চালু হওয়া এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১৪৫ বছর পূর্ণ করে ১৪৬ বছরে পা রাখলো।

১৪৫ বছরের চড়াই উৎড়াই পার হয়ে আজও এই কলেজ তার স্ব-মহিমায় উজ্জ্বল। দীর্য এই সময়ে এখানে পদচারণা পড়েছে কৃতি শিক্ষার্থী ও বরেণ্য ব্যক্তিবর্গের। এই কলেজে শিক্ষা লাভ করেছেন বাংলাদেশের চার জাতীয় নেতার একজন এ এইচ এম কামারুজ্জামান। এছাড়াও এখানে জ্ঞানার্জন করেন সাবেক প্রধান বিচারপতি হাবিবুর রহমান, চলচিত্র পরিচালক ঋত্বিক ঘটক, শিক্ষানুরাগী মাদার বখশ, সাহিত্যিক অক্ষয় কুমার মৈত্র, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপচার্য স্যার যদুনাথ সরকার প্রমুখ।

প্রায় ২৭ হাজার শিক্ষার্থীর পদচারণায় মুখর রাজশাহী কলেজ ক্যাম্পাস। ২৪ টি বিভাগে স্নাতক সম্মান, স্নাতকোত্তর, ডিগ্রি ও এইচ.এস.সি শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদানের জন্য বর্তমানে কলেজে আছেন ২৪৮ জন কর্মঠ শিক্ষক।

কলেজে পুরাতন স্থাপত্যের নিদর্শন হিসেবে যেমন রয়েছে পুরোনো ভবনসমূহ, তেমনি রয়েছে বেশ কয়েকটি নতুন ভবন। কলেজের পুরোনো দিনের লাল রঙা ভবনগুলো মনে করিয়ে দেয় আগের দিনের রাজকীয় স্থাপত্যশৈলী।

আধুনিক প্রযুক্তির সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য পিছিয়ে নেই রাজশাহী কলেজ। কলেজের নিরাপত্তার স্বার্থে গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে স্থাপন করা হয়েছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা। প্রতিটি বিভাগে চালু করা হয়েছে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম পদ্ধতি। শিক্ষকদের জন্য সরবরাহ করা হয়েছে প্রয়োজনীয় ল্যাপটপ। প্রতিটি বিভাগে রয়েছে সুদৃশ্য কম্পিউটার ল্যাব। ক্লাসের শিক্ষার্থীদের বহির্বিশ্বের সাথে সর্বাদা যোগাযোগ রাখার জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে ফ্রি ওয়াই-ফাই সেবা।

ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে ঘরে বসেও কলেজের যাবতীয় বিজ্ঞপ্তি ও তথ্য সংগ্রহ করতে পারে এজন্য রয়েছে কলেজের নিজস্ব ডাইনামিক ওয়েবসাইট। এছাড়াও কলেজের বিভিন্ন সংবাদ ও সংবাদযোগ্য তথ্য প্রচারের জন্য চালু হয়েছে কলেজের নিজস্ব অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘রাজশাহী কলেজ বার্তা’। এছাড়াও রয়েছে কলেজ কতৃক পরিচালিত অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ও ফেসবুক গ্রুপ।

কলেজে জ্ঞানার্জনের জন্য রয়েছে সুবিশাল গ্রন্থাগার। যেখানে রয়েছে পুরোনো দিনের গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র ছাড়াও নিত্যনতুন বইসমূহ। মুক্ত জ্ঞান অর্জনের জন্য প্রতিদিনই এখানে ভীড় জমান বিভিন্ন শিক্ষার্থী।

কলেজে শিক্ষার পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণের সুযোগ। এখানে রয়েছে রোভার স্কাউট, বিতর্ক ক্লাব, ক্যরিয়ার ক্লাব, সংগীত একাডেমী, রক্তদানের প্রতিষ্ঠান বাঁধন, বরেন্দ্র থিয়েটার, অন্বেষণ, আধুনিক ব্যায়ামাগার ও সৌন্দর্যময় বোটানিক্যাল গার্ডেন ও নামাজের জন্য দ্বিতল মসজিদ। দূর দূরান্ত থেকে আগত শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ছাত্রাবাস ও ছাত্রী নিবাস। ছাত্রছাত্রীদের যাতায়াতের জন্য রয়েছে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা।

বর্তমানে আধুনিক রাজশাহী কলেজের রুপকার হলেন রাজশাহী কলেজ এর বর্তমান এবং ৫৬ তম অধ্যক্ষ প্রফেসর মুহাঃ হবিবুর রহমান। তার পৃষ্ঠপোষকতায় রাজশাহী কলেজ যেন হয়ে উঠেছে এক আদর্শ বিদ্যাপীঠে।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of