এবার এইচএসসিতে শতভাগ পাস রাজশাহী কলেজের, জিপিএ-৫ পেলেন ৪১৫ জন

2
107

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় প্রতিবছরের ন্যায় এবারও গৌরবোজ্জ্বল সাফল্যের ধারাবাহিতা বজায় রেখেছে জাতীয় পর্যায়ে দেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ রাজশাহী কলেজ। এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় রাজশাহী কলেজের শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছেন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪১৫ জন।

এ ফলাফলে উচ্ছ্বাসিত শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষকসহ সকলেই বাঁধ ভাঙ্গা আনন্দের জোয়ার বইছে যেন কলেজটির ক্যাম্পাসের ভেতরে-বাইরে।

এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় রাজশাহী কলেজ থেকে ৫৮৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ৫৮৪ জনই উত্তীর্ণ হয়েছে। অর্থাৎ উপস্থিত পরীক্ষার্থীদের শত ভাগই পাশ করার গৌরব অর্জন করেছে এ কলেজ। আর এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪১৫ জন। অর্থাৎ মোট পরীক্ষার্থীর ৭১ দশমিক ০৬ ভাগই এ প্লাস পেয়েছে। বাকি শিক্ষার্থীদের ফলাফলও খারাপ নয়।

প্রতিষ্ঠানটির বিজ্ঞান বিভাগ থেকে মোট ৩০৬ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৮৮ জন। ব্যবসায় বিভাগ থেকে ১৩৬ জনের মধ্যে ৬১ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। মানবিক বিভাগ থেকে ১৪৪ জনের মধ্যে ৬৬ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।

জানা গেছে, গেলো বছর এ কলেজের পাশের হার ছিলো ৯৯.৪৯%। মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিলো ৫৯১ জন। যার মধ্যে পাশ করেছিল ৫৮৮ জন এবং জিপিএ-৫ ছিলো ৪৪৮ জনের।

বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৩৫০ জন অংশগ্রহন করে ১০০% পাশের হার নিয়ে জিপিএ-৫ পায় ৩৪২ জন। ব্যবসায় শাখা থেকে ১১৮ জন অংশগ্রহন করে শতভাগ পাশের মাধ্যমে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৩৩ জন।

এবং মানবিক বিভাগ থেকে পরীক্ষায় অংশ নেয়া ১২৩ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১২০ জন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে পরীক্ষায় অনুপস্থিত থাকার কারণে ওই ৩ শিক্ষার্থী ফেল করে। মানবিকে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৭৩ জন।

জানা গেছে, বর্তমান অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান অধ্যক্ষের দায়িত্ব পর থেকে এ প্রতিষ্ঠানটি অসাধারণ সাফল্য অর্জন করছে। কলেজটির এ ফলাফলে খুশির জোয়ারে ভাসছে শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার পর থেকেই কলেজে শুরু হয় উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের মিলনমেলা। আর তাদের সাথে যোগ দেন অভিভাবক ও শিক্ষকরাও।

জিপিএ-৫ পাওয়া জমজ ভাই ফাহমিদুর রহমান শাওন ও মেহেদী হাসান তুষারের রত্নাগর্ভা জননী নাজমা ফেরদৌসি অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক বিশেষ করে অধ্যক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ছেলেরা খুবই নিয়মানুবর্তী ছিলো। তাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা ও আল্লাহর রহমতেই এ ফলাফল করতে পেরেছে।

মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত আনিকা তাবাসসুম জানায়, বাবা-মা ও শিক্ষকদের সঠিক নির্দেশনা তাঁর ভালো ফলাফল পাওয়ার অন্যতম কারণ। সাথে আল্লাহর রহমত ও কঠোর পরিশ্রম তাকে এ ফলাফল অর্জনে সহায়তা করেছে বলে জানায় সে।

জিপিএ-৫ প্রাপ্ত বিজ্ঞান বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী আশরাফুল আশিক বলেন, নিয়মিত ক্লাস, পরীক্ষায় অংশগ্রহণ, অধ্যক্ষ স্যার এবং অন্যান্য শিক্ষকদের আন্তরিকতাই এ সাফল্যের মূল রহস্য।

শিক্ষার্থীদের ফলাফলের বিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান বলেন, ভর্তির স্বচ্ছতা, শিক্ষার্থীদের মেধা ও শ্রম এবং শিক্ষকদের আন্তরিক প্রচেষ্টা এ ফলাফল অর্জনে মূল ভূমিকা পালন করেছে। সেই সাথে কলেজের নিয়ম-কানুন ও শৃঙ্খখলা ভালো ফলাফল অর্জনে অন্যতম সহায়তা করেছে। আগামীতেও এ ফলাফল ধরে রাখতে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা থাকবে বলে জানান তিনি।

2
Leave a Reply

avatar
2 Comment threads
0 Thread replies
0 Followers
 
Most reacted comment
Hottest comment thread
1 Comment authors
RobiuRobiul Recent comment authors
  Subscribe  
newest oldest most voted
Notify of
RobiuRobiul
Guest
RobiuRobiul

Filling proud..

RobiuRobiul
Guest
RobiuRobiul

Filling proud