জাপান যাচ্ছেন রাজশাহী কলেজের তিন শিক্ষার্থী

রাজশাহী কলেজ বার্তা | | January 17, 2018 at 9:31 pm

সাকুরা এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামিং ইন সাইন্স প্রোগ্রামে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হচ্ছেন রাজশাহী কলেজের তিন শিক্ষার্থী। আগামী শনিবার (২০ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে সাত দিনের এই সাইন্স প্রোগ্রামিং এ অংশ নিতে তাঁরা জাপানের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন। বুধবার দুপুরে রাজশাহী কলেজের শিক্ষক মিলোনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠানে রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান জানান, একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী আবদুর রাজ্জাক, আফিফা তানিম ক্বনিতা ও লামিয়া এনাম এবার বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে যাচ্ছেন জাপান। তাদের সঙ্গে থাকবেন রাজশাহী কলেজের পদার্থবিজ্ঞানে প্রভাষক বারিক মৃধা।

এব্যাপারে রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান বলেন, জাপানের ওকিয়ামা ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ থেকে কিছু শিক্ষার্থী পড়া-শোনার জন্য নিচ্ছে। বাংলাদেশের মধ্য শুধু রাজশাহী কলেজে তিন শিক্ষার্থীকে তাঁরা বাছাই করে নিয়েছে। এই তিন শিক্ষার্থীই রাজশাহী কলেজ তথা বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবে।

তিনি বলেন,  বিশ্বায়নের যুগে সারা পৃথিবীর সাথে যোগাযোগ স্থাপনে জন্য ওকিয়ামা ইউনিভার্সিটি তাদের সাকুরা এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামিং ইন সাইন্স প্রোগ্রামে তাঁরা নতুন প্রজন্মকে আহবান করছে। এই প্রোগ্রামে  বাংলাদেশসহ কোরিয়া, চীন ও থাইল্যান্ডের শিক্ষার্থীরাও অংশ নিবে। সাতদিনের প্রোগ্রামে শেষে তাঁরা চাইলে সেখানেই চার বছারের  গ্রেজুয়েশন করতে পারবে। এখন থেকে প্রতিবছর ওই তাঁরা রাজশাহী কলেজ থেকে শিক্ষার্থী নেবে বলেও জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, বংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবে এই তিন শিক্ষার্থী যা রাজশাহী কলেজ তথা রাজশাহী বাসীর জন্য অনেক গৌরবের।

জানা গেছে, অবদুর রাজ্জাক নগরীর বহরমপুর এলাকার জহুরুল ইসলামের ছেলে, আফিফা তানিম ক্বনিতা অলোকার মোড় এলাকার আব্দুহু রূহুল জামীলের মেয়ে ও লামিয়া এনাম সাধুর মোড় মীরের চক এলাকার একেএম এনামুল হকের মেয়ে।

রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োলজিক্যাল সাইন্স বিভাগের পরিচালক প্রফেসর মুনজুর হোসাইন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ও জাপানের ডিএমডি মাইসি একাফুজি প্রতিষ্ঠানের প্রধান বিজ্ঞানী কেনজি টুসজি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.